বাংলাদেশ জাতীয় দলের ৫ ক্রিকেটার।

নিউজিল্যান্ডে কখনোই ম্যাচ জিতেনি বাংলাদেশ। এবার ওয়ানডেতে জয়ের আশা করছে টাইগাররা। যদিও সাকিবের ছিটকে পড়া বাংলাদেশের জন্য বড় ধাক্কা। তবে মাশরাফি-তামিমের কণ্ঠে জয়ের আশাবাদ রয়েছে। দুই বছর আগে নিউজিল্যান্ড সফরে সুযোগ তৈরি করেও ব্যাটিং ধসে জয় হাতছাড়া করেছিলো বাংলাদেশ। এবার তেমন সুযোগ পেলে তা কাজে লাগাতে চান টাইগাররা।
ইতোমধ্যে নিউজিল্যান্ডে চলে গেছেন দলের সিংহভাগ ক্রিকেটার।

৯ ফেব্রুয়ারি রাতে দেশ ছেড়েছেন আরও চার ক্রিকেটার। ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার নেতৃত্বে তামিম ইকবাল, রুবেল হোসেন, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনরা রাত ১১টা ৫৫ মিনিটের ফ্লাইটে দেশ ছাড়েন। ইনজুরিতে পড়ায় ওয়ানডে সিরিজ শেষ হয়ে গেছে সাকিবের। তাই বিমানে চড়া হয়নি তার।

এদিকে আজ ১০ ফেব্রুয়ারি নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে প্রস্তুতি ম্যাচে মাঠে নামবে বাংলাদেশ দল। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের আগে এটিই প্রস্তুতির বড় সুযোগ টাইগারদের সামনে। ক্রাইস্টচার্চে মুশফিক-মাহমুদউল্লাহদের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন মুমিনুল হক, সাদমান ইসলাম, মোহাম্মদ মিঠুন ও শফিউল ইসলাম। প্রস্তুতি ম্যাচে তাই খেলোয়াড় সংকট আর থাকছে না।

ক্রাইস্টচার্চে প্রস্তুতি ম্যাচ হলেও সিরিজের প্রথম ওয়ানডে অনুষ্ঠিত হবে নেপিয়ারে আগামী ১৩ ফেব্রুয়ারি। মুশফিকদের আগেই নেপিয়ারে পৌঁছে যাবেন মাশরাফিরা।

ওয়ানডে সিরিজে নামার আগে নিশ্চিতভাবেই প্রস্তুতি ঘাটতি থাকবে বাংলাদেশ দলে। মাহমুদউল্লাহরা কয়েক সেশন অনুশীলন করেছেন প্রথমভাগে নিউজিল্যান্ড যাওয়ায়। কিন্তু কন্ডিশনে মানিয়ে নেওয়ার সুযোগটা সেভাবে পাচ্ছেন না মাশরাফি-তামিমরা। একদিন অনুশীলনের সুযোগ পাবেন তারা।