বক্তব্য রাখছেন ব্যারিস্টার রুমিন ফঅরহানা

কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ও সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা বলেছেন, আওয়ামী লীগের প্রতিপক্ষ এখন বিএনপি নয়, আওয়ামী লীগের প্রতিপক্ষ এখন পুরো বাংলাদেশ। বিএনপি করলে নির্যাতিত হতে হয়, গুম হতে হয়। ঘরে ঘরে নির্যাতিত মানুষ বাড়ছে।

তাই দেশের মানুষ আজ জেগে উঠেছে। আমরা সংসদে যে আওয়াজ তুলেছি, আজ সারাদেশে সেই আওয়াজ উঠেছে। বর্তমান সরকার, দুর্নীতি-লুটপাটের সরকার। তারা আর বেশিদিন টিকতে পারবেনা।

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) দুপুরে পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার সাহাপুরে জেলা বিএনপি আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় একথা বলেন তিনি।

শেখ হাসিনার ট্রেনে গুলি-বোমা হামলার রায়ে দন্ডপ্রাপ্ত ঈশ্বরদীর বিএনপি নেতাদের পরিবারের প্রতি সহানুভূতি জানাতে যান বিএনপির ৬ জন সংসদ সদস্য। সেখানে অনুষ্ঠিত হয় মতবিনিময় সভায়।

সভায় রুমিন ফারহানা আরো বলেন, আমি জীবনে কখনও শুনি নাই যে ঘটনায় কেউ আহত বা নিহত হলো না আর সেই ঘটনায় ৯ জনকে ফাঁসি দেয়া হলো। এই দেশে ন্যায় বিচার থাকলে দন্ডপ্রাপ্তদের উচ্চ আদালত থেকে সাজামুক্ত করে আনা হবে।

জেলা বিএনপির আহবায়ক হাবিবুর রহমান হাবিবের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ও সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য র‌্যরিস্টার রুমীন ফারহানা, বগুড়া সদর আসনের সংসদ সদস্য জিএম সিরাজ, ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের এমপি জাহিদুর রহমান, বগুড়া-৪ আসনের এমপি মোশারফ হোসেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের এমপি হারুন অর রশিদ, পাবনা জেলা বিএনপির সদস্য অ্যাডভোকেট মাসুদ খন্দকার প্রমুখ।

বিএনপি নেতৃবৃন্দ বলেন, একটি দু:সহ কঠিন অবস্থার মধ্যে চলছে দেশ। দেশে এখন জুলুমের শাসন চলছে। সরকার আর মানুষের মাঝে কোনো সম্পর্ক নেই। মিথ্যা ঘটনা সাজিয়ে ঈশ্বরদী বিএনপির ৯ জনকে ফাঁসি, ২৫ জনকে যাবজ্জীবন ও ১৩ জনকে দশ বছর করে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। এ সময় হতাশ না হওয়ার আহবান জানিয়ে দণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি নেতাদের পরিবারের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দেন নেতারা।

জেলা বিএনপির সদস্য সচিব সিদ্দিকুর রহমান সিদ্দিকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় জেলা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

শাহীন রহমান/পাবনা