৩১ আগস্ট শনিবার ‘নিবেদিতা উইমেন সামিট ২০১৯’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। কুমিল্লা কোটবাড়ির বার্ডে এই সামিট অনুষ্ঠিত হয়। কুমিল্লা জেলা প্রশাসক জনাব মোঃ আবুল ফজল মীর প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে দিনব্যাপী এ সম্মেলনের উদ্বোধন করেন।

পরে বক্তব্যে জেলা প্রশাসক বলেন, ব্যবসা ব্যবস্থাপনায় ই-কমার্স হলো একটি আধুনিকতম সংযোজন। এ ব্যবসার মাধ্যমে ক্রেতা বিক্রেতার সময় ও শ্রম অনেকটা সাশ্রয় হয়। নারীরা এই ব্যবসায় এগিয়ে আসলে তাদের জীবন মানের আরও উন্নতি হবে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন কুমিল্লা জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জনাব কায়জার মোহাম্মদ ফারাবী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তানভীর সালেহীন ইমন, বার্ডের যুগ্ম পরিচালক নাসিমা আক্তার, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর কুমিল্লার উপ-পরিচারক সেলিনা আক্তার, বার্ডের উপ পরিচালক মো. আবদুল মান্নান, ই-ক্যাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রাজীব আহমেদ প্রমুখ। এর আগে নিবেদিতার প্রতিষ্ঠাতা আনিকা ইসলাম ক্ণা স্বাগত বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন নারী উন্নয়ন এবং নারীর ক্ষমতায়ন সমাজের প্রত্যেকটি অংশে নিশ্চিত করা এবং নারীদের আর্তসামাজিক উন্নয়নে কাজ করতে তিনি বদ্ধপরিকর। তার লক্ষ্য কুমিল্লার মেয়েদের আধুনিকভাবে গড়ে তোলা এবং নিজেদের অধিকার আদায়ে সক্ষম করে তোলা।

সমাপনী অনুষ্ঠানে আইসিটি মন্ত্রণালয়ের স্টার্টআপ বাংলাদেশের প্রকল্প পরিচালক জনাব মুজিবুল হক (যুগ্ম সচিব) প্রধান অতিথি হয়ে আসেন এবং কিভাবে বাংলাদেশ সরকার উদ্যোক্তাদের সাহায্য করে থাকেন তা নিয়ে আলোচনা করেন।
অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ১০ মিনিট স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা এবং স্পিকার আয়মান সাদিক,দেশসেরা আলোকচিত্রী প্রীত রেজা, এসময়ের সেরা নাট্যকার ইরফান সাজ্জাদ, বিউটিশিয়ান স্বর্ণা মারিয়া এবং ইকবাল বাহার সহ আরো দেশসেরা চেনা মুখ ।

অনুষ্ঠানের উপস্থাপনায় ছিলেন বাংলাভিশনের নিউজ প্রেজেন্টার, এডিটর এবং বহু প্রতিভাসম্পন্ন ব্যাক্তিত্ব জনাব মোঃ আলমগীর। সম্মেলনে প্রায় তিনশত নারী উদ্যোক্তা ও আগ্রাহী নারী উদ্যোক্তারা অংশ নেন বলে আয়োজকরা জানিয়েছেন।
অনুষ্ঠানে টাইটেল স্পন্সর ছিল প্রান-আরএফএল গ্রপের ইতালিয়ানো মেলামাইন এবং কমফি । আনুস্থানটির স্ট্রাটিজিক পার্টনার হিসেবে ছিল উইমেন অ্যান্ড ই-কমার্স এবং অ্যাডভাইজর হিসেবে ছিল বিটুইবি।

তাছাড়া ব্যাংকিং পার্টনার হিসেবে ছিল ব্রাক ব্যাংকের তারা ব্যাংকিং, ফটোগ্রাফি পার্টনার ছিল ওয়েডিং ডায়েরী বাংলাদেশ, ই-কমার্স পার্টনার ছিল দারাজ ডট কমের নন্দিনী, বেভারেজ পার্টনার কোকাকোলা, বিউটি পার্টনার কুইন্স বিউটি সেলুন, স্নাক্স পার্টনার আহমেদ ফুড, মিডিয়া পার্টনার ইউএনবি, ইভেন্ট পার্টনার ছিল কল ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট, এডুকেশন পার্টনার কুমিল্লা সিটি কলেজ এবং তাছাড়াও কুমিল্লা থেকে আরও অনেক সহযোগী গিফট স্পন্সর ছিল যারা অতিথিদের জন্য গিফট স্পন্সর করেছেন ।

সামিট শেষে সবাই খুশি মনে বাড়ি ফিরতে পেরেছেন কারন নিবেদিতার প্রতিষ্ঠাতা আনিকা সবার সেইফটির কথা চিন্তা করে ট্রান্সপোর্টের বেবস্থা রেখেছেন যেন সবাই নিরাপদে বাড়ি ফিরতে পারে। সবাই এই সামিট থেকে অনেক কিছু শিখে তার জীবনে প্রয়োগ করতে পারবে এটাই আনিকা এবং অতিথিদের চাওয়া।