logo

শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ . ১৪ ফাল্গুন ১৪২২ . ১৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৭

দুটি অনুগল্প স্বপ্নময় চক্রবর্তী
অন্তর্র্গভ
২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬
আমার মামা থাকেন ঝাড়্গ্রাম। মামাতো ভাই বড়ো চাকুরে। দুই মামাতো ভাই আছে আমার। মামা একাই থাকেন। একবার গিয়েছিলাম মামার বাড়ি। অনেক শাল-সেগুন গাছ আছে বাড়ির চারদিকে। মামাতো ভাই জানালো মামা মারা গেছেন। আমি ঝাড়্গ্রাম গেলাম। মামা শুয়ে আছেন মেহগনির খাটে। মেহগনির টেবিলে আধভরতি হরলিক্স-এর শিশি। শুকনো কমলালেবুর খোসা, ওষুধের স্টি"প মেঝেতে পড়ে আছে। টুলে বসে আছেন এক প্রৌঢ়া। ওর চোখ জলে ভেজা। মামাতো ভাইয়ের স্ত্রী বাবা-বাবা বলে একটু কান্নাকাটি করল, তারপর তোষকের তলা থেকে আলমারির চাবিটা বার করল। আলমারিটা খুলল। আলমারির ভিতরে ঠাসা ‘ঝাড়্গ্রাম বার্তা’। প্রৌঢ়া মহিলাটির নাম আশালতা। এই মহিলাই মামার দেখাশোনা করত। মামাতো ভাইয়ের স্ত্রী জিজ্ঞাসা করল বাবা জিনিসপত্র কোথায় রাখতেন? আশালতা বলল, ওই দেরাজেই তো। ওখানেই যা আছে। আলমারির লকারটা খোলা হল। লকারের ভিতরে একটা কাঠের বাক্স, তার মধ্যে একটা চাবি। ওটাই লকারের চাবি, ব্যাংকের লকার। আশালতা বলল।

সর্বশেষ খবর

শঙ্খচিল এর আরো খবর

আজকের পত্রিকা. কমের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ নিষেধ

Developed by